সংবাদ শিরোনাম :
«» গাজীপুর ১ আসনে আ.ক.ম মোজাম্মেল হক এর প্রতি ওয়ার্ডে নৌকার প্রচারনা «» গাজীপুর ২ আসনে জাহিদ আহসান রাসেল এর নৌকার ব্যাপক প্রচারণা «» ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট যাত্রীদের চরম ভোগান্তি «» শার্শায় নৌকা প্রতীককে জয়ী করার লক্ষে উপজেলা ছাত্রলীগের তলবী সভা «» শার্শা থানা পুলিশের নির্বাচনী মহড়া «» গাজীপুর ২ আসনে জাহিদ আহসান রাসেল এমপি’র নৌকার প্রচারণায় খাদিজা রাসেল «» গাজীপুরে-২ আসনে নৌকার পক্ষে জাতীয় শ্রমিক লীগের মিছিল «» পত্র-পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশিত হওয়ায় বেনাপোল স্থল বন্দরে সচল লোড আনলোড «» গাজীপুরে ছুরিকাঘাতে নিহত ১ «» বেনাপোলের সীমান্তে ভারত থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের সময় ৯ জন আটক ও বিপুল পরিমান ফেন্সিডিল জব্দ

কালিয়াকৈরে ব্যবসায়ী অপহরনের দুইদিনেও উদ্ধার হয়নি

মাইনুল সিকদার ঃ কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি।
গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার আটাবহ ইউনিয়নের জালশুকা এলাকার চাঁন মিয়া(৩৫) নামে এক ব্যবসায়ীকে অপহরন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাতে কর্মস্থল থেকে বাড়ীতে যাওয়ার সময় অপহরণকারীরা তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় বলে পরিবারের অভিযোগ।এদিকে অপহরনের ৩৮ ঘন্টা অতিবাহিত হলেও উদ্ধার হয়নি অপহৃত ব্যাক্তি। চানমিয়া উপজেলার জালশুকা এলাকার মৃত-আব্দুল হামিদের ছেলে। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে সিফাত ড্রিংকিং ওয়াটার এন্ড বেভারেজ কোম্পানী নামে একটি প্রতিষ্ঠানে পার্টনারশীপে ব্যবসা করে আসছে। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে পরেরর দিন থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন। সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার জালশুকা এলাকায় অপহৃতের স্ত্রী সাহিদা আক্তার, শাকিবুল হাসান শাওন ও শ্রাবন নামে দুছেলেকে নিয়ে চাঁন মিয়ার সংসার। তিনি উত্তর বঙ্গের যাত্রীবাহী বাসের মালিক ছিলেন। পরে বাস গাড়ীটি বিক্রি করে দিয়ে সিফাত ড্রিংকিং ওয়াটার এন্ড বেভারেজ কোম্পানীর প্রতিষ্ঠানের সাথে যৌথ ব্যবসা শুরু করেন। কারখানার কাজ শেষে মঙ্গলবার রাত ১০টায় বাড়ী যান চান মিয়া। খাওয়া দাওয়া শেষে তিনি স্ত্রী সন্তানের কাছে বলে পুনরায় ওই কারখানায় যায়। কিন্তু তিনি আর রাতে বাড়ী ফিরেনি। সকালে এলাকার লোকজন তার বাড়ীর পাশে জুতা ও মোবাইল পায়। রাতে কে বা কাহারা সাদা রঙের মাইক্রোবাস নিয়ে তাকে অপহরন করে নিয়ে যায় বলে তার স্ত্রী ও ছেলে দাবী করেছে। এ দিকে পাশের ডিজিটাল সোয়েটার কারখানার নিরাপওাকর্মী আবুল কালাম রাতেই শুনতে পান কে একজন বলছে আমাকে মেরে ফেলবেন না। পরে তার আর কোন সারা শব্দ পাওয়া যায়নি। তার পর থেকে ব্যবসায়ী চাঁন মিয়া নিখোজ রয়েছে।অপহৃত চাঁন মিয়ার স্ত্রী সাহিদা বলেন,কিছুদিন যাবত ব্যবসা নিয়ে তার পার্টনারের সাথে বিরোধ চলছিল। আর সে কারনেই কয়েকদিন যাবত কারখানা থেকে বাড়ীতে এসে সে সবসময় চিন্তামগ্ন থাকতো।কি কারনে সে কেন চিন্তামগ্ন থাকতো এ বিষয়ে জানতে চাইলে চাঁন মিযার স্ত্রী বলেল, বিষয়টি আপনাদেরকে পরে জানাবো। কিন্তু চাঁনমিয়া ওইদিন রাতে বের হয়ে আর বাড়ী ফিরে আসেনি। পরের দিন সকালে বাড়ী থেকে একটু দুরে তার জুতা ও মোবাইল পড়ে থাকতে দেখা যায়। ধারনা করা হচ্ছে কেউ তাকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে। কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) আব্দুল হাকিম বলেন,এটি অপহরন না আতœগোপন বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *