সংবাদ শিরোনাম :
«» কাশ্মীর পাড়ি দেয়া যাবে ট্রেনেই, নির্মিত হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু রেলসেতু «» গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু «» মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান কোনো ভেদাভেদ নেই ঃ তথ্যমন্ত্রী «» গাজীপুরে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুইজন ডাকাত সদস্য নিহত «» লহরীতে এসএসসি ব্যাচ-২০১৩ ইং এর উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» গাজীপুরে নানা আয়োজনে পালিত হয়েছে সেচ্ছাসেবক লীগের ২৬তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী «» সাংবাদিক মোঃনাছির উদ্দিন পবিত্র ঈদুল আযহা’র উপলক্ষে গাজীপুর বাসিকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন «» নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার দড়িকাছিকাটা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ মাসুদুর রহমান মাসুদ এর একটি খোলা চিঠি «» নবীনগর উপজেলার শ্যামগ্রামে পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃৃত্যু! «» করোনাকালে সচেতনতা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ করেছেন কাউন্সিলর নূরুল ইসলাম নূরু

গাজীপুরে চলন্ত বাসে ধর্ষণের চেষ্টা

   নাসির উদ্দিন,গাজীপুর প্রতিনিধি :                                                                      চলন্ত বাসে এক ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে বাসের চালক ও সহকারীরা। ঘটনাটি ঘটেছে গাজীপুরের শ্রীপুরে। ধস্তাধস্তিকালে ওই ছাত্রী লাথি দিয়ে জানালার কাচ ভেঙে ফেললে পথচারীরা টের পায়। পরে তারা মহাসড়ক পুলিশকে জানালে তাৎক্ষণিক পুলিশ ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে। ওই সময় বাসচালকের দুই সহকারীকে আটক করা হয়। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে চালক পালিয়ে যায়। ওই সময়  যাত্রীবাহী একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-জ-১৪-০৪৯৩) জব্দ করেছে পুলিশ। গত শনিবার রাতে উপজেলার মাওনা ফ্লাইওভারে ঘটনাটি ঘটে।স্কুলছাত্রীর বাড়ি বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলায়। সে রাজধানীর মিরপুর ১ এ আত্মীয়ের বাসায় থাকে। সেখানে পাশের একটি বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী সে। আটক হওয়া ব্যক্তিরা হলেন দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার আমড়া গ্রামের কবির হোসেনের ছেলে জুয়েল (২৮) ও নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার চন্দনকান্দি গ্রামের আলতু মিয়ার ছেলে আশিক (২২)। তারা দুজনই চালকের সহকারী।আটক হওয়া দুজন পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বাসচালকের নাম হারুন মিয়া ও তার বাবার নাম মৃত আবদুল কুদ্দুস বলে জানিয়েছে। তবে বাসচালকের ঠিকানা জানাতে পারেনি তারা। মাওনা মহাসড়ক থানার ওসি মঞ্জুরুল হক জানান, গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় নাটকের শুটিং ছিল তার (স্কুলছাত্রী)। শুটিংয়ে অংশ নিতে মিরপুর থেকে রাত সাড়ে আটটার দিকে চান্দনা চৌরাস্তায় নামে সে। পরে সেখান থেকে সে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চলাচলকারী যাত্রীবাহী একটি বাসে উঠে। কিছুদূর যাওয়ার পর চালকের ‘সমস্যা আছে’ বলে সহকারীরা বাস থেকে অন্য যাত্রীদের নামিয়ে দেয়। ওই সময় চালক স্কুলছাত্রীকে আশ্বস্ত করে জানায়, তার সমস্যা থাকলেও তাকে গন্তব্যে পৌঁছে দেবে। পরে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে গন্তব্যে পৌঁছে না দিয়ে স্কুলছাত্রীকে নিয়ে শ্রীপুরের মাওনা উড়াল-পথে চলে আসে তারা। সেখানে উড়াল-পথের উপর বাসের ভেতর তারা স্কুলছাত্রীকে মুখ বেঁধে ধর্ষণচেষ্টা চালায়। ধস্তাধস্তিকালে স্কুলছাত্রী পা দিয়ে জানালার কাঁচ ভেঙে ফেললে মহাসড়কে দুই পাশে পথচারীরা টের পায়। পরে তারা মহাসড়ক পুলিশকে জানালে পুলিশ তাৎক্ষণিক ওই স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *