সংবাদ শিরোনাম :
«» ক্ষমতার বলে হারিয়ে যাচ্ছে বগুড়া ধুনটের মথুরাপুর বাজার «» উত্তরায় থেকে অপহৃত ব্যবসায়ী মিহির রায় দক্ষিণখান থেকে উদ্ধার, দুই অপহরণকারী গ্রেফতার «» গাজীপুরবাসী বিনামূল্যে করোনার টিকা পাবে, মেয়র এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম «» শহীদ আসাদ দিবসে এনাম ডেন্টাল কেয়ার শহীদ আসাদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন «» ময়মনসিংহের ত্রিশালে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে এক নারী নিহত ও সিএনজি ড্রাইভারসহ অপর ৫ জন গুরুতর আহত «» প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ «» টঙ্গীতে ৫দিনব্যাপী স্কাউট সমাবেশের সমাপনী অনুষ্ঠান «» টঙ্গীতে গণতন্ত্রের বিজয় দিবস উপলক্ষে আনন্দ র‌্যালী «» গাজীপুর মহানগর চাপুলিয়া গাঁজাসহ দুইজন গ্রেপ্তার «» বঙ্গবন্ধুকে বেশি বেশি জানতে হবে: আইজিপি বেনজির আহমেদ

বঙ্গবন্ধুকে বেশি বেশি জানতে হবে: আইজিপি বেনজির আহমেদ

মোঃ কবির হাওলাদার :
পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. বেনজির আহমেদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধুকে জানতে এবং বুঝতে হবে। দেশের উন্নয়ন করতে হলে বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস বেশি বেশি পাঠ করতে হবে।
বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
পুলিশ প্রধান বলেন, বঙ্গবন্ধুকে ছাড়া এদেশ কল্পনাও করা যায় না।  তার ত্যাগ জীবনসহ সবকিছুর সঙ্গে মিশে ছিল দেশের মানুষের প্রতি ভালোবাসা। তার আত্মত্যাগ, যোগ্য নেতৃত্বের কারণেই পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে আজ আমরা স্বাধীন হয়েছি। দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ ও জনগণের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

dav

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন অবিসংবাদিত নেতা।  তার নেতৃত্ব ছাড়া এদেশের স্বাধীনতা কল্পনাও করা যায় না। যা তিনি বাস্তবে রূপ দিয়েছেন। এ দেশের মানুষকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। আর স্বাধীনতা রাখতে এবং এ দেশকে এগিয়ে নিতে তার যে ভালোবাসা সর্বোপরি চিন্তা-ধারণা তার প্রতি আমাদের চর্চা করতে হবে।
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা বই ‘দিশারী’ মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসেবে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী বলেন, বঙ্গবন্ধু চর্চা করা দেশের প্রতিটি নাগরিকের উচিত। রাজনৈতিক মতভেদ থাকতে পারে।  কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কোনো মতবিরোধ থাকতে পারে না। কেননা তিনি শুধু দেশের কথা চিন্তা করে নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেননি, অনেক জুলুম অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম  বলেন, স্বাধীনতার আগে এ দেশটাকে লুটতরাজের দেশে পরিণত করা হয়।  আর্থসামাজিক উন্নয়ন, মানুষের জীবনমান ক্ষুধা-দারিদ্র্য এ কারণে লেগেই ছিল। বঙ্গবন্ধুর সাহসী ও যোগ্য নেতৃত্বে শুরু হয় স্বাধীনতা যুদ্ধ। এই যুদ্ধে পাক হানাদার বাহিনীকে পরাজয়ের পর দেশের মানুষের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। তারা এখন  জীবনমান, লেখাপড়া সর্বোপরি উন্নতমানের জীবনযাপন করতে পারছেন। মনে রাখা দরকার স্বাধীনতার আগে ৫০ পয়সা খরচ করেও আমাদের অভিভাবকরা সন্তানকে লেখাপড়া করাতে পারছেন না। কিন্তু এখন অনেকেই উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত হচ্ছেন। যারা দেশ গঠনে অবদান রেখে চলেছেন।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *