সংবাদ শিরোনাম :
«» টঙ্গীতে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার এমপি’র ১৭তম শাহাদাত বার্ষিকীতে দোয়া ও ইফতার মাহফিল «» বেস্ট অফ দ্যা মিলেনিয়াম এসএসসি ২০০০ব্যাচ বাংলাদেশ এর উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» গাজীপুরের টঙ্গীতে সেবক সংগঠনের উদ্যোগে মটর শ্রমিকদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ «» অন্তিম আলো ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসেন এর পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» যশোরের শার্শা থেকে ০৪ কেজি গাঁজা সহ মহিলা আটক «» ২৩ রমজানেও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সেহরি বিতরণ অব্যাহত «» কমলাপুরের ছিন্নমূল মানুষদের জন্য সাহরীর ব্যবস্থা করল বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ «» বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের ইফতার বিতরণ «» বেনাপোলে কেজি দরে তরমুজ বিক্রি, ক্রেতাদের ক্ষোভ «» ময়মনসিংহের ত্রিশালে পথশিশু কল্যাণ ফাউন্ডেশনের ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

হিজড়া ও ইউনিয়ন উদ্যোক্তা সচিবের অত্যাচারে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী l

আতাউর রহমান কাজল : 
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলা অবস্থিত রসুল্লাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের আরেক নাম দুর্নীতির ও অনিয়মের কারখানা। দুর্নীতির মূল কারিগর হল উদ্যোক্তা সচিব, বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে থাকে এলাকার নিরীহ ও সাধারণ জনগনকে, নিয়মনিতি না মেনে উদ্যোক্তা সচিব তার মনগড়া মতে চালাচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ বলে অভিযোগ উঠেছে। ইউনিয়নে সরকারী নানান সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে অনৈতিক ভাবে অর্থ আদায়ে ফুঁসে উঠেছে রসুল্লাবাদ ইউনিয়নের সাধারন জনগন।
স্থানীয় জনসাধারনের অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, রসুল্লাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা সচিব সাগর দীর্ঘ দিন ধরে দুর্নীতি ও অনিয়মসহ  জনগণের সাথে অসদাচরণ করে আসছেন। এতে জনগনসহ সংশ্লিষ্ট সকলেই অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। তিনি টাকা ছাড়া কোন কাজ করেন না। তার আচার-আচরণ ও ব্যবহার অত্যান্ত আপত্তিজনক। তিনি সঠিক ভাবে ইউনিয়ন পরিষদের কাজকর্ম করেন না। তার দ্বারা এলাকার অনেক ক্ষতি হচ্ছে। তাই অনতিবিলম্বে ব্যাবস্থা নেয়া উচিত। তা না হলে এলাকার অনেক ক্ষতি সাধন হবে। অন্যদিকে ডিজিটাল সেবা কেন্দ্র সচিবের , অনলাইনের ফি এর নামে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ রয়েছে।   এছাড়া জন্ম নিবন্ধন ও মৃত্যু নিবন্ধন, জন্মের ও মৃত্যুর প্রথম দিন থেকে পয়তালি­শ দিন পর্যন্ত সরকারি, আইন অনুযায়ী কোন টাকা লাগেনা, পাঁচ বছর পর্যন্ত (২৫/-) পঁচিশ টাকার উপরে যত বছর হোক (৫০/-) পঞ্চাশ টাকা, নেওয়ার কথা থাকলেও ঐ দুর্নীতিবাজ নিয়মভঙ্গকারী ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা  উত্তরাধিকারি সনদ কোন টাকা লাগবেনা, সরকারি ভাবে নিষেধ থাকলেও অনিয়মকারী সচিব ইউনিয়ন  উদ্যোক্তা সচিব সাগর নিচ্ছে(৫০০/-৫০০oটাকা)  টাকা, এ ভাবে হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা।
এ বিষয়ে’ তদন্তে বেরিয়ে আসে পরিষদের আসল রুপ, কেউ যদি কোন সনদের জন্য আবেদন করেন, তাহলে অতিরিক্ত বিভিন্ন হারে টাকা চেয়ে থাকেন পরিষদের লোভি উদ্যোক্তা সচিব সাগর  এবং নিরীহ ও সাধারণ মানুষ বাধ্য হয়ে টাকা দিতে হয়, তাছাড়া কেউ যদি সনদের অতিরিক্ত ফি দিতে রাজি না হয়, ঐ কাজ রাখতে রাজি হয়না ঐ দুর্নীতিবাজ সচিব।  ইউনিয়নের সহজ সরল মানুষ পেয়ে এভাবেই হাতিয়ে নিচ্ছে অনেক টাকা
 দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ সত্যএলাকার মানুষ তার বড় প্রমান।
# হিজড়া, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন অপরাধীর সমন্বয়ে গড়ে ওঠা ‘হিজড়া গ্রুপের’ অত্যাচারে আমাদের রসুল্লাবাদ ইউনিয়ন জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। সর্বত্র দাপিয়ে বেড়াচ্ছে হিজড়া বাহিনী। বিভিন্ন দল ও সংগঠনের নামে বিভক্ত হয়ে  এলাকা থেকে শুরু করে সর্বত্র চাঁদাবাজিতে মেতে উঠেছে তারা। এ ছাড়া শিশু নাচানোর নাম করে বাড়ি থেকেও জোর করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অঙ্কের টাকা।  তারা দল-উপদলে বিভক্ত হয়ে বাড়ি, দোকানপাট, ব্যবসা কেন্দ্র,ধার্য করে দিচ্ছে চাঁদার টাকা। টাকা দেওয়ার সময় পর্যন্ত বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। নির্ধারিত সময়ে টাকা না দিলে তুলকালাম কাণ্ড ঘটাচ্ছে তারা। অশ্রাব্য গালাগাল, নগ্ননৃত্য প্রদর্শন, ভাঙচুর চালানো, মারধরসহ নানা অপকর্মে মেতে ওঠে হিজড়ারা। তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেও কোনো সুফল পাওয়া যায় না।
কাঙ্গালি ভোজ বাদ দিয়ে জন্মদিন সুন্নাতে খাৎনা অনুষ্ঠানগুলোতে তারা ধার্য করে দিচ্ছে চাঁদার টাকা।
# কোটিপতি হিজড়া : হিজড়াদের মধ্যে  যে সরদার  রয়েছে অঢেল সম্পদ। অনুসন্ধানে জানা গেছে, চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসা, সন্ত্রাসীদের আশ্রয়সহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করে অঢেল সম্পত্তির মালিক হয়েছে  হিজড়া সরদার…….
দুর্নীতি, পরিবেশগত অপরাধ ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের মতো বিষয় নিয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে প্রায়ই ক্ষমতাবানদের বাধার মুখে পড়ে থাকি আমরা  সাংবাদিক l যুক্তিতে দুর্নীতি বললে শুধু ঘুস বা অর্থ আত্মসাৎ মনে করি, কিন্তু দুর্নীতির রূপ বহুবিধ৷ অন্যের সাথে অনৈতিক আচরণ করাও দুর্নীতির মানসিকতা৷ ছোট বেলার পাঠ্যে ছিল, ‘‘অন্যায় যে করে আর অন্যায় যে সহে, তব ঘৃণা তারে যেন তৃণসম দহে৷” সেই বিবেচনায় দুর্নীতি দেখেও চুপ করে থাকা অন্যায়৷

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *