সংবাদ শিরোনাম :
«» নড়াইলে বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যার দুই পুত্রবধূ ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী রহস্য বেরিয়ে আসেছে!! «» ময়মনসিংহে এিশালে দিনব্যাপী প্রনিসম্পদ প্রদর্শনী উদ্বোধনী ও আলোচনা অনুষ্ঠিত «» নড়াইলে ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেফতার ৪ «» বেনাপোলে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ «» নড়াইলে পুলিশের অভিযান ইয়াবা গাঁজাসহ গ্রেফতার ৩ «» নড়াইলের পল্লীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের গরু বিক্রয়ের টাকা হাতিয়ে নিল গরু দালালরা!! «» নড়াইলে র‍্যাব’র অভিযানে ইয়াবাসহ গ্রেফতার ২ «» বেনাপোল স্থল বন্দরে ভারতীয় ট্রাকে আগুন «» নড়াইলে বিলুপ্তের পথে অত্যাবশকীয় পুষ্টিগুণ ফল কালো জাম! «» আমার পরিবারের কেউ মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নয়, যারা মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাইৃ… ময়না বেগম

আমার পরিবারের কেউ মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নয়, যারা মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাইৃ… ময়না বেগম

মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক ঃ

আমার পরিবারের কেউ মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নয়, অন্যের প্ররোচনায় যারা মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের উৎসাহিত করে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই ।
ব্যাংক মাঠ বস্তির আরেক নাম ময়না বেগম, ধরা-ছোঁয়ার বাইরে রয়েছে। মিথ্যা, বানোয়াট এমন শিরোনামের নিন্দা জানাই। আমি স্থানীয় ৫৬ ননম্বর ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক। জন্ম লগ্ন থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা রেখে কাজ করে আসছি। অন্যত্র কোথাও মাদক ধরা পড়লে আমি সহ আমার পরিবারের কাউকে না কাউকে মামলায় জড়ানো হয়। ১০/১২ বছর যাবত আমার পরিবারের কেউ মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নয়, আমার কোন সেল্সম্যানও নেই। বাপ দাদার আমল থেকেই ঘর বাড়ি রয়েছে। তা ভাড়া দিয়ে পাশাপাশি ঝোট ব্যবসা করে স্বাভাবিক জীবন যাপন করে আসছি। আমার মেয়ে নারগিস একসময়ে টুকিটাকি ব্যবসা করে যা আয় করতো তার চেয়ে বেশি চাকরিতে দিয়ে মাস শেষে ঋণের বোঝা টানতে হতো তার উপর আবার মামলা। এমন কর্মকান্ডকে ধিক্কার জানিয়ে স্বপরিবারে মাদক ব্যবসা

ত্যাগ করে স্বাভাবিক জীবন যাপন করে আসছি। আমার ভাই, শফিক এর কথা বলা হয়েছে ১০ বছর যাবত তার সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই, কোন কথাও হয় নি। শুনেছি কেরানীগঞ্জের জেলে আছে, কোন দিন দেখতেও যাইনি। রানী ও রব্বানী’র কথা বলা হয়েছে, তারা আমার পরিবারের কেউ না । ব্যাংকের মাঠের অন্যান্য মাদক ব্যবসায়ী ও শেলটার দাতাদের ছত্র ছায়ায় ইয়াবা ব্যবসা করে পেটের দায়ে এমনটাই শুনেছি। কিছু দিন আগে পুলিশের হাতে ধরা খেয়ে জেল হাজতে আছে। অন্যরা ব্যবসা করে আমার ছেলে তাজুলের নামে মামলা হয় । এমন অবস্থা দেখে কিছুদিন আগে টঙ্গী ছেড়ে চলে যাই অন্যত্র । মাদারীপুরে আমার আত্মীয় স্বজনরা সমাজে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি। তারা তাদের বাড়িঘর তৈরি করে নাম হয় ময়না বেগম এর। আত্মীয়, স্বজন ধনী হলে তাদের খোজ খবর বা তাদের সাথে সম্পর্ক ভালো থাকে এটাই স্বাভাবিক। এমন অবস্থায় নাম ফুটেছে আমার, মাদারীপুরে আমার নাকি কোটি টাকার সম্পদ । এমন কুৎসা রচয়িতাদের প্রতি তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। সংবাদে বলা হয়েছে তাজুল ইসলাম তার শ্বশুরের নামে জমি কিনেছে। এটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। সোলেমান ফরাজি আমার ছেলে শ্বশুর। তার সম্পদ তার কাছে। জামাই শ্বশুরকে কোটি টাকার সম্পদ কিনে দিয়েছে এটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। আত্মীয় স্বজন, ছেলে, মেয়ে নিয়ে বহু বছর আগেই মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা নিয়ে কাজ করে আসছি বিধায় একটি মহল আমার বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে। তাছাড়া ব্যাংক মাঠ এলাকার কিছু অসাধু লোকদের স্বার্থ হাসিল হচ্ছে না, বিধায় আমার বিরুদ্ধে গণমাধ্যম কর্মীদের উৎসাহিত করে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের সমাজে হেয় প্রতিপন্ন সহ মানহানীকর ঘটনার সমতুল্য সংবাদ প্রকাশ করে যাচ্ছে। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে গণমাধ্যম কর্মীদের যাচাই বাচাই করে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের আহবান জানাচ্ছি আমি ময়না বেগম।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *