সংবাদ শিরোনাম :
«» টঙ্গীতে কৃষক লীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী উদ্ভধন «» কেরানীগঞ্জ আটি বাজার রাফিয়া হাসপাতালে নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট এর অভিযান «» যশোর নারাঙ্গালী সম্মিলিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নব নির্বাচিত সভাপতি আখতারুল কবির মিলন «» নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জে কারখানায় আগুন, লাশের মিছিলে স্বজনদের আহাজারি «» যশোরে গরিব, দুঃখী, অসহায়দের মাঝে ত্রান বিতরন «» গাজীপুরে ফ্রি অক্সিজেন সার্ভিস উদ্বোধন করলেন কামরুল আহসান রাসেল সরকার «» গাজীপুর চৌরাস্তায় লকডাউন বাস্তবায়নে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত «» মোদি-মমতার জন্য ২৬০০ কেজি আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী «» অপরাধীদের কঠোর বার্তা দিলেন নবাগত এ এস পি নবীনগর সার্কেল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া। «» গাজীপুর মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে অধ্যাপক শেখ ফজলে শামস পরশ এর জন্মদিন উদ্যাপন

গরু চোরের সর্দার থেকে ড্রেজার ব্যবসায়ী

আতাউর রহমান কাজল:
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলায়  রসুল্লাবাদ ইউনিয়নের মোল্লা গ্রামের সাবেক ফারুক মেম্বার কর্তৃক বালু উত্তোলনের মহোৎসব
বাংলায় একটি প্রবাদ প্রচলিত আছে, ‘চুরি বিদ্যা মহা বিদ্যা, যদি না পড় ধরা।’ তা ধরা পড়ুক আর না পড়ুক, পৃথিবীর ইতিহাসে এমন কিছু চোর বা জালিয়াত আছেন, যারা এই চুরিবিদ্যা নামক ‘মহাবিদ্যা’ টিকে একদম শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গেছেন। তা চলুন, আজ এমনই কিছু ‘শিল্পী’ সম্পর্কে জানা যাক .. ফসলি জমি কাটার অভিযোগের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা অভিযানে বের হলে ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই টের পেয়ে যায় ড্রেজার ব্যবসায়ীরা। যার ফলে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে পাওয়া যায়না। অভিযান শেষে ফিরে আসার ঘণ্টা পার না হতেই আবারো পুরো দমে চলে মাটি উত্তোলন।  বিভিন্ন কর্মচারীদেরকে সুবিধা দিয়ে এ অবৈধ ব্যবসা চালিয়ে যাওয়ার কথা সাধারণ মানুষের মুখে মুখে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার মাইলের পর মাইল পাইপ সংযোগ দিয়ে ড্রেজিংয়ের মাটি পকুর ভরাট করা হচ্ছে। অবৈধ ড্রেজিংয়ের কারণে ৫০/৬০ ফুট গভীর থেকে মাটি ও বালি উত্তোলনের কারণে আশ-পাশের তিন ফসলের জমিগুলো ক‚পে পরিণত হচ্ছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে অন্তত: ৩০ জন ব্যক্তি বলেন, প্রশাসনের লোকজন আসার আগেই কিভাবে যেন তারা টের পায়। মেশিনপত্র বন্ধ করে চলে যায়। পরক্ষণে প্রশাসনের লোকজন চলে গেলে তারা আবারো মাটি কাটার উৎসবে মেতে ওঠে। পুলিশ চাইলে ড্রেজার ব্যবসায়ীদের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করতে পারে। যেহেতু এটি ফৌজদারী অপরাধ। কিন্তু ড্রেজার ব্যবসায়ী ও পুলিশের মধ্যে চোর-পুলিশ খেলাটা সকলের মধ্যে সন্দেহের কারণ। কেননা পুলিশ আসার আগেই ড্রেজার ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। গণমাধ্যম কর্মীদের নিকট তাদের দু:খের কথা বলতে গিয়ে অনেক কৃষক কান্নায় ভেঙে পড়েন
 যার বা যাদের ক্ষেত মাটি খননের ফলে নষ্ট হচ্ছে তারা বড় অসহায়। তাদের পাশে দাঁড়ানো এখন জরুরি। শক্তি চট্টোপাধ্যায় যেমন বলেছেন, ‘মানুষ বড় কাঁদছে, তুমি মানুষ হয়ে পাশে দাঁড়াও,/ মানুষই ফাঁদ পাতছে, তুমি পাখির মতো পাশে দাঁড়াও,/ মানুষ বড় একলা, তুমি তাহার পাশে এসে দাঁড়াও।’

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *